আজ রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০ইং

নগরীতে ১৬টি স্থানে বিক্রয় হচ্ছে টিসিবি’র পণ্য

ভোরের সিলেট: দ্রব্যমূল্যের উধ্বমুখী রোধে ও কালাবাজারীদের হাত থেকে ক্রেতা সাধারণকে রক্ষা করতে সিলেটের ১৬টি স্থানে টিসিবির পণ্য বিক্রি করা হয়েছে।

আজ রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টা থেকে ওইসব স্থানে পেয়াজ, সয়াবিন তেল, ডাল, চিনিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় স্থানে টিসিবির পণ্য বিক্রি করা হয়। টিসিবির গাড়ি থেকে ৩০ টাকা পেয়াজ ক্রয় করতেন ক্রেতারা।

সকালে নগরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়-পেঁয়াজসহ অন্যান্য পণ্য ট্রাক হাজির হওয়া মাত্রই ক্রেতাদের ভিড় লাগতে শুরু করে। এ সময় দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে ক্রেতাদের টিসিবির পেঁয়াজ কিনতে দেখা গেছে।

এদিকে প্রথম দিন টাকা জমা দিয়ে পণ্য পেতে ডিলারদের কিছুটা সময় লেগেছে বলে জানিয়েছেন ডিলাররা। তবে পণ্য পাওয়ার পর পরই শুরু হয়ে বিক্রি কার্যক্রম। সিলেট শহরে একই সাথে রিকাবীবাজার (পুরাতন মেডিকেল কলোনির সামনে), বাগবাড়ি (বর্ণমালা পয়েন্ট), শেখঘাট (জিতু মিয়ার পয়েন্ট), বন্দরবাজার (রেজিস্ট্রারি মাঠ) ও শাহী ঈদগাহ (ময়দান সংলগ্ন) ও মদিনা মার্কেট এলাকায় টিসিবি তাদের পণ্য বিক্রি করে।

এছাড়াও সিলেট বিভাগে ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ মোট ১৬টি ট্রাকে করে পেঁয়াজসহ তাদের অন্যান্য পণ্য বিক্রি করে। যার মধ্যে প্রতিটি জেলা শহরে ২টি করে আটটি ট্রাক। আর বাকি ট্রাকগুলো বিভাগের অন্যান্য উপজেলায়।

এ ব্যাপারে টিসিবি সিলেটের ইনচার্জ মো. ইসমাইল মজুমদার বলেন, সকাল থেকেই আমরা খোলাবাজারে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করেছি। আমাদের ডিলার সরকার নির্ধারিত মূল্যে নগরের ৬টি পয়েন্টে ৬টি ট্রাকের মাধ্যমে পেঁয়াজ বিক্রি করছে এবং পুরো বিভাগে ১৬ টি ট্রাকের মাধ্যমে পেঁয়াজসহ চিনি, মশুর ডাল এবং সয়াবিন তেলও বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া সিলেট বিভাগে মোট ১৫৪ জন ডিলার রয়েছেন। যাদের মধ্যে ১৬ জন করে পর্যায়ক্রমে সকলেই টিসিবির পণ্য কিনে তা বিক্রি করতে পারবে। তিনি আরও বলেন, টিসির গাড়ি ৩০ টাকা পেঁয়াজের পাশাপাশি ৫০ টাকা দরে চিনি ও মশুর ডাল এবং ৮০ টাকা দামে সয়াবিন তেল বিক্রি করছে। যা আগামী ১ অক্টোবর পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে।

তিনি বলেন, ৩০ টাকার পেঁয়াজ জনপ্রতি ২ কেজি দেওয়ার কথা থাকলেও প্রথমদিন আমরা ক্রেতাদের ১ কেজি করে দিচ্ছি। পরবর্তীতে ক্রেতাদের দুই কেজি করে দেয়া হবে।

আজকের সংবাদ