আজ বুধবার, আগস্ট ১২, ২০২০ইং

গোলাপগঞ্জে ৭০ লক্ষ টাকার ভারতীয় মোবাইল জব্দ

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি:: গোলাপগঞ্জ উপজেলার বাঘা এলাকায় ৭০লক্ষ টাকার ভারতীয় মোবাইল জব্দ করেছে পুলিশ। শনিবার (১আগষ্ট) রাত সাড়ে ১১টার দিকে গোলাপগঞ্জ উপজেলার বাঘা ইউনিয়নের আব্দুল আহাদ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ সম্মুখ সড়কে অজ্ঞাত নোহা মাইক্রোবাস (নম্বর ঢাকা মেট্রো চ ১১ ৫২১৩) নিয়ে মানুষের মধ্যে ডাকাত আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। নোহা গাড়ীটি স্থানীয় লোকজন ঘেরাও করে রাখলে শাহপরান থানা পুলিশ ও গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে নিশ্চিত করে চোরাকারবারীদের নিয়ে আসা ভারতীয় মোবাইলের চালান। এসময় নোহা গাড়ী ও গাড়ীতে থাকা ৩১৬টি ভারতীয় মোবাইল উদ্ধার করা হলেও পালিয়ে যেথে সক্ষম হয় চোরাকারবারিদলের ৪সদস্য।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসএমপি’র শাহপরান (রহঃ) থানা পুলিশ জানতে পারে যে সিলেটের সীমান্তবর্তী তামাবিল থেকে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে মোবাইল ফোনের একটি বড় চালান চোরাকারবারিরা নিয়ে এসেছে। এ খবর পেয়ে তারা বিভিন্ন গাড়িতে তল্লাশি শুরু করে। রাত সাড়ে ৯টার দিকে সিলেট তামাবিল সড়কে হয়ে নোহা মাইক্রোবাস গাড়ী নিয়ে আসে। তখন শাহপরাণ বাইপাস সড়কের দায়িত্বে থাকা পুলিশ গাড়ীটিকে থামানোর চেষ্টা করে। কিন্তু গাড়ীটি না থামিয়ে সিলেট বাঘা সড়কের দিকে দ্রুত গতিতে যেতে থাকে। এসময় পুলিশও তাদের আটকাতে পিছু নেয়। এক পর্যায়ে তারা গোলাপগঞ্জ উপজেলার বাঘা ইউনিয়নে পৌছে আব্দুল আহাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে নোহা গাড়ি ও মোবাইল ভর্তি ৮টি ব্যাগ রেখে পালিয়ে যায়। জনতা গাড়ীটি ঘেরাও করে রাখে।

এসময় শাহপরাণ (রহঃ) থানা পুলিশ উপস্থিত হয়ে গাড়ি ও মোবাইল জব্দ করে গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশকে খবর দেয়। গোলাপগঞ্জ থানা পুলিশ নোহা গাড়ি ও মোবাইল ভর্তি ব্যাগগুলো থানায় নিয়ে আসে। গোলাপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ হারুনুর রশীদ চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নোহা গাড়ি ও ৩১৬টি ভারতীয় মোবাইল উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

উদ্ধারকৃত মোবাইলের আনুমানিক মূল্য ৭০লক্ষ টাকা হবে বলে জানান। এ বিষয়ে যথাযথ প্রক্রিয়ায় মামমলার প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানান।