আজ রবিবার, আগস্ট ৯, ২০২০ইং

করোনা ভাইরাস কী তাহলে বাতাসে ছড়ায়ঃ WHO

ভোরের সিলেট ডেস্কঃ এতদিন পর্যন্ত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়ে এসেছে যে করোনা ভাইরাস এয়ারবোর্ন নয়, অর্থাৎ হাওয়া-বাতাসে ছড়াতে পারে না। কিন্তু একদল মার্কিন বিজ্ঞানীর নয়া দাবিতে নতুন করে চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। তাঁদের দাবি বাতাসেও ছড়াতে পারে এই মারণ ভাইরাস।

এর আগে বরাবরই হু বলে এসেছে যে, কশরোনা ভাইরাস ছড়ায় ড্রপলেটের মাধ্যমে। আক্রান্ত ব্যক্তি কাশলে বা হাঁচলে তার মুখ থেকে বেরিয়ে আসে ড্রপলেট। আর সেটাই অন্য কারও শরীরে প্রবেশ করলে ভাইরাসের সংক্রমণ হয়।

কিন্তু সম্প্রতি নিউ ইয়র্ক টাই,সে একদল বিজ্ঞানী দাবি করেন যে করোনা ভাইরাসে বাতাসে ছড়ায়, এমন স্পষ্ট প্রমাণ রয়েছে তাঁদের কাছে। হু-কে বিষয়টি দেখার আর্জি জানান তাঁরা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এর জবাবে জানিয়েছে যে তাঁরা তাঁদের টেকনিক্যাল টিম দিয়ে বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন। যদিও এখনও যথেষ্ট প্রমাণ নেই বলেই জানিয়েছেন তাঁরা।

পরের সপ্তাহে এ বিষয়ে ২৩৯ জন গবেষক একটি জার্নাল প্রকাশ করতে চলেছেন বলে জানা যাচ্ছে। মনে করা হচ্ছে, সেখানে এ বিষয়ে উল্লেখ থাকবে। ওই রিসার্চ পেপারে ৩২ দেশের গবেষকরা লিখবেন বা মতামত দেবেন।

অন্যদিকে, ‘সানডে টাইমস’-এ প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৩-তে একটি ঘটনা ঘটেছিল, যার সঙ্গে এই করোনা ভাইরাসের সম্পর্ক আছে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

ইউনান প্রদেশের একটি গুহায় ছিল অনেক বাদুড়। আর সেগুলো পরিস্কার করতে গিয়ে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে পড়ে ছয় কর্মী। তাদের মধ্যে তিনজনের মৃত্যুও হয়। অনুমান করা হয়েছিল যে, বাদুড় থেকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ হওয়াতেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিল ওই কর্মীরা।

‘সানডে টাইমস’-এর রিপোর্ট বলছে, উহানের গবেষক শি ঝেংলি ওই গুহায় গিয়ে বাদুড়ের ভাইরাস নিয়ে গবেষণা চালিয়েছিলেন। সম্প্রতি তিনি একটি সাক্ষাৎকারে বলেন, এই কোভিড-১৯-এর সঙ্গে RaTG13 ভাইরাসের মিল রয়েছে। আর সেটাই RaTG13 ভাইরাসই মিলেছিল ওই গুহা থেকে।

ভোরেরসিলেট/কলকাতা/বিএ