আজ রবিবার, আগস্ট ৯, ২০২০ইং

প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সিদ্ধান্তে উত্তেজনা

ভোরের সিলেটঃ গত ১ জুলাই বিট্রিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন দেশটির পার্লামেন্টে দাঁড়িয়ে জানিয়েছিলেন, ‘নতুন নিরাপত্তা আইন হংকংয়ের স্বাধীনতা ক্ষুন্ন করেছে। যারা এতে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন তাদেরকে ব্রিটেনে আসার সুযোগ দেয়া হবে।’

তিনি জানান, ‘প্রায় সাড়ে ৩ লাখ ব্রিটিশ ন্যাশনাল পাসপোর্টধারীসহ বাকি ২ দশমিক ৬ মিলিয়ন হংকংয়ের নাগরিক পর্যায়ক্রমে ব্রিটেনে এসে ৫ বছরের জন্য বসবাস করতে পারবেন। স্থায়ী বসবাসের জন্য বা ব্রিটিশ নাগরিকত্ব লাভের জন্য পরবর্তীতে আবেদন করতে পারবেন।’

উক্ত ইস্যুতে চীনের সঙ্গে যুক্তরাজ্যের উত্তেজনা তীব্র আকার ধারণ করেছে। হস্তক্ষেপ না করতে ব্রিটেনকে পাল্টা সতর্ক করে দিয়েছে বেইজিং। প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, হংকংয়ের যেসব বাসিন্দার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব (ওভারসিস) রয়েছে; তারা ব্রিটেনে চলে আসতে চাইলে চীনের বাধা দেয়া উচিত হবে না। প্রয়োজনে নাগরিকত্বের কথাও বলা হয়। এ ঘোষণার পরই চীন তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে।

ভোরের সিলেট/বিএ