আজ শনিবার, জুলাই ১১, ২০২০ইং

বড় পর্দার তারকারা ঝুঁকছেন স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচিত্রে

ভোরের সিলেট ডেস্ক
দীর্ঘদিন ধরেই ভালো যাচ্ছে না চলচ্চিত্রের পরিবেশ। সিনেমা সংকট, ভালো ছবির অভাব, প্রেক্ষাগৃহে দর্শকখরাসহ নানা কারণে চলচ্চিত্রে রুগ্ন অবস্থা বিরাজ করছে। হতাশা কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন নিয়ে শুরু হয়েছিল চলতি বছর। কিন্তু ‘মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা’ হয়ে এলো মহামারি করোনা। চলমান এ মহামারিটি পুরো চলচ্চিত্র শিল্পকেই মহামন্দায় ফেলে দিয়েছে। নতুন সিনেমা প্রযোজনা তো দূরের কথা প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ থাকায় মুক্তি পাচ্ছে না কোনো সিনেমা। কাজের অভাবে বেকার হয়ে পড়ছেন চলচ্চিত্রকর্মীরা। এমতাবস্থায় অনেকেই বিকল্প চিন্তা করছেন। এরই ধারাবাহিকতায় অনেকেই কাজ করছেন ছোটপর্দায়। টিভি নাটক কিংবা স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে কাজ করছেন কেউ কেউ। সম্প্রতি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে কাজ করছেন বড় পর্দার অনেক তারকা। নির্মাতারাও এই মাধ্যমে কাজের আগ্রহ দেখাচ্ছেন।

২৯ মে ‘বিদ্যা সিনহা মিম’-এর ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত হয়েছে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘কানেকশন’। রায়হান রাফির পরিচালনায় অভিনয়ের পাশাপাশি এর গল্পভাবনা ও আবহ সংগীত করেছেন তাহসান খান। অভিনয় করেছেন বিদ্যা সিনহা মিম ও তাহসান খান। এই ছবির ভাবনাও তাহসানের। গল্প লিখেছেন মাসুদুল হাসান। চলচ্চিত্রটি মিমের নিজস্ব প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রযোজিত। ১৮ মিনিটের এই ছবি আলোচনার জন্ম দিয়েছে। দর্শকমহলেও পেয়েছে ব্যাপক সাড়া।

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নিয়ে নিজের ইউটিউব চ্যানেলে হাজির হচ্ছেন নায়িকা আইরিন। তসলিমা নাসরিনের প্রেমের কবিতা ধরে নির্মিত হয়েছে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। এতে দেখা যাবে ‘ভুল প্রেমে কেটে গেছে তিরিশ বসন্ত’ নামের এ কবিতাটি আবৃত্তি করছেন আইরিন। পাশাপাশি এর ছন্দে ফুটে উঠবে গল্প। আইরিন বললেন, ?’সারাক্ষণ শুধু নিজেরা দৌড়ঝাঁপের মধ্যে থেকেছি। নিজেকে নিয়ে ভাবনার সুযোগ পাইনি। এই লকডাউনে সেটা সম্ভব হয়েছে। পাশাপাশি আরও একটি বিষয় সামনে এসেছে, আমরা সবাই ভার্চুয়াল জগতে আরও বেশি অভ্যস্ত হয়ে উঠেছি। সেই কারণেই নিজের ভাবনা থেকে ইউটিউব চ্যানেল চালু করছি। সেখানে এই কাজটি থাকবে।’ আগামী কোরবানির ঈদ উপলক্ষে এই চ্যানেলটি চালু করবেন আইরিন। কবিতা নিয়ে কাজ করা প্রসঙ্গে এই তারকা বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই আমি কবিতা খুব পছন্দ করি। আবৃত্তি করি। আমার এই কাজটি কেউ দেখেনি। স্বল্পদৈর্ঘ্যের মাধ্যমে অন্য আইরিনকে দেখা যাবে এবার।’ এটি নির্মাণ করেছেন ইভান মনোয়ার। এরই মধ্যে শুটিং শেষ হয়েছে। এখন ডাবিংয়ের কাজ চলছে। অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনার গল্পে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন নির্মাতা অনিমেষ আইচ। স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটির নাম ‘একা’। পরিচালনার পাশাপাশি ‘একা’র চিত্রনাট্য লিখেছেন অনিমেষ আইচ নিজেই। এতে ভাবনাসহ অভিনয় করেছেন শতাব্দী ওয়াদুদ ও রুনা খান। ভাবনা বলেন, ‘করোনার কারণে ঘরে থাকার দিনগুলোতে ছবি আঁকাআঁকির মধ্যেই ছিলাম। অনিমেষের অনুপ্রেরণাতেই গল্পটা লেখা। এটি করোনাকেন্দ্রিক একজন গৃহকর্মীর গল্প। মানবিক বিষয়বস্তু এতে উঠে আসবে। নির্মাতা সূত্রে জানা গেছে, ভাবনার লেখা স্বল্পদৈর্ঘ্যটি অনলাইন মাধ্যম বায়োস্কোপ পস্ন্যাটফরমে দেখা যাচ্ছে।’ ‘আলো আসবেই’ নামে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। চলচ্চিত্র নির্মাণে হাত দেন দেবাশীষ বিশ্বাস। যেখানে অভিনয় করেন সিনেমার বড়পর্দার ১২ তারকা। এদের মধ্যে আছেন ইমন, মাহিয়া মাহী, ববি হক, বাপ্পি চৌধুরী, সাইমন সাদিক, জায়েদ খান, মিশা সওদাগর, অমিত হাসান, আঁচল, তমা মির্জা ও শাহরিয়াজ। চলচ্চিত্রটির পরিকল্পনার সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন অপু বিশ্বাস। তিনি জানান, এই করোনাকালে উপস্থাপক ও পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাস গান গেয়ে প্রায়ই তার নিজের ফেসবুক পেজে আপলোড করেন। একদিন ফোন করে দেবাশীষ দাদাকে কিছু একটা করার অনুরোধ করেন তিনি। অপু বিশ্বাস বললেন, ‘এরই মধ্যে দেখলাম, বলিউড, টলিউডে করোনা পরিস্থিতি ধরে ছোট ছোট চলচ্চিত্র তৈরি হয়েছে। দেবাশীষ দাদাকে আমি বললাম, চলো আমরাও এমন কিছু করি। দাদা রাজি হয়ে গেলেন। এভাবেই কাজটি করা।’ ভারতের কলকাতার জনপ্রিয় নির্মাতা রিঙ্গো ব্যানার্জি করোনা সচেতনতা নিয়ে তৈরি করেছেন স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘আই উইল ওয়েট’। এ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন ২৭ অভিনেতা। যার বাংলাদেশের একমাত্র অভিনেতা শাহেদ শরীফ খান। অভিনয় প্রসঙ্গে শাহেদ বলেন, রিঙ্গো দাদার সঙ্গে অনেক আগে থেকেই আমার পরিচয়। গত বছর তার পরিচালনায় কলকাতায় সেনাপতি নামের একটি চলচ্চিত্রেও অভিনয়ের সুযোগ পাই। এটি এখনও মুক্তি পায়নি। তার আগেই আবারও আমাকে এ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয়ের সুযোগ করে দিয়েছেন। তার নির্দেশনা অনুযায়ী ঢাকা থেকে আমার ভিডিওটি পাঠিয়ে দেই। এভাবেই তৈরি হয় এটি। অনিমেষ আইচ তার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলের জন্য নির্মাণ করেন মনস্তাত্ত্বিক গল্প নির্ভর স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘অ্যান এসকেপিস্ট’। ১০ মিনিটের এই স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের প্রযোজনা, পরিচালনা, কাহিনী, চিত্রনাট্য ও নির্মাতা অনিমেষ আইচ। এতে অভিনয় করেছেন দীপক সুমন, ফকরুজ্জামান, নূরন্নাহার বেবী, শিশুশিল্পী নৈঋতা ও রুসমিলা। অভিনেত্রী এবং মডেল রাফিয়াত রশিদ মিথিলা অভিনয় করেছেন ‘দ্য ফরগটেন ওয়ান স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে। এ চলচ্চিত্রটির গল্পের কারিগর অভিনেতা ইরেশ যাকের। আর এতে মিথিলার সঙ্গে অভিনয় করেছেন মেয়ে আয়রা। এছাড়া ইন্দো-বাংলাদেশের ছোট ছবি ‘দূরে থাকা কাছের মানুষ’ এ অভিনয় করেছেন মিথিলা। এর প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের রাফিয়াত রশিদ মিথিলা ও কলকাতার বিক্রম চট্টোপাধ্যায়। সম্প্রতি ছয়জন স্বাধীন নির্মাতার নির্মিত ৬টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নিয়ে ‘টঙ-আইসোলেশন ডায়েরি’ নামে সিরিজ প্রকাশ করেছে টঙঘর টকিজ। ঘরবন্দি সময়ের ভিন্ন ভিন্ন অভিজ্ঞতার গল্প উঠে এসেছে ৬টি শর্টফিল্মেই।

ভোরের সিলেট/যায়যায়দিন/টিএ

সংবাদটি শেয়ার করুন: