আজ মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৬, ২০২১ইং

জয়পুরহাটে বাস-ট্রেন সংঘর্ষে এ পর্যন্ত নিহত বেড়ে ১২

ভোরেরসিলেট: জয়পুরহাট সদরের পুরানাপৈল রেলগেটে ট্রেনের ধাক্কায় নিহত বেড়ে ১২ জনে দাঁড়িয়েছে। নিহতরা সকলেই বাসের যাত্রী। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও চারজন। দুর্ঘটনার পর থেকে উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে সারা দেশের ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) সকাল ৬টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জেলা প্রশাসক শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘ঘটনাস্থল থেকে ১০ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আহত ছয়জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুজন মারা গেছেন। এ বিষয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।’

জয়পুরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলমগীর জাহান জানান, হতাহতরা সবাই বাসযাত্রী বলে জানা গেছে।

নিহতদের মধ্যে ছয়জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন, বাসচালক সদর উপজেলার হারাইল গ্রামের মামুনুর রশিদ, হিচমী গ্রামের মানিকের ছেলে রমজান, পাঁচবিবি উপজেলার আটুল গ্রামের সরোয়ার হোসেন, আরিফুর রহমান রাব্বি, আক্কেলপুর উপজেলার চক বিলা গ্রামের দুদু কাজীর ছেলে সাজু মিয়া ও নওগাঁর রানী নগর উপজেলার বিজয়কান্দি গ্রামের বাবু। বাকিদের পরিচয় শনাক্তে পুলিশ কাজ করছে।

জয়পুরহাট ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনের ইনচার্জ সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘পার্বতীপুর থেকে ছেড়ে আসা উত্তরা এক্সপ্রেস রাজশাহীতে যাচ্ছিল। জয়পুরহাট থেকে ছেড়ে আসা বাঁধন নামের একটি যাত্রীবাহী বাস (বগুড়া জ-১১-০০০৮) হিলি স্থলবন্দরের দিকে যাচ্ছিল। যাওয়ার পথে বাসটি পুরানাপৈল রেলগেটে উঠে পড়ে। এতে ট্রেনটি ওই বাসকে ধাক্কা দিয়ে ৪০০ মিটার দূরে নিয়ে যায়। বাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। ঘটনাস্থলেই ১০ জনের মৃত্যু হয়।

ভোরেরসিলেট/ডেস্ক/বিএ